আলোচনা ! বিএনপির সঙ্গে আলোচনা নিয়ে এইমাত্র যে সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিলেন তোফায়েল ! তবে কি ?

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, বিএনপির সঙ্গে আলাপ-আলোচনার কোনো সম্ভাবনা নেই। সংবিধানের আলোকে বর্তমান সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে। নির্বাচন কমিশন সেই নির্বাচন পরিচালনা করবে।

আজ বুধবার দুপুরে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সেমিনার হলে হাসুমণি’র পাঠশালা আয়োজিত ‘তারুণ্য সম্পদ, তারুণ্যই ভাবিষ্যৎ : প্রয়োজন আদর্শিক নেতৃত্ব’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে এ কথা বলেন তোফায়েল আহমেদ।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, বিএনপি তো রূপরেখা দিতে পারে, এখন কার সঙ্গে আলোচনা হবে জানি না। তবে আওয়ামী লীগের সাথে আলোচনার কোনো সম্ভাবনা নাই।

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন নিয়ে প্রশ্নের জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এই নির্বাচন কমিশন গঠন হয়েছিল সার্চ কমিটির মধ্য দিয়ে। সাংবিধানিক পদে যারা অধিষ্ট তাদের দিয়েই সার্চ কমিটি গঠন করা হয়েছিল। এমনি বিএনপির কাছেও নাম চাওয়া হয়েছিল, আমাদের কাছে নাম চাওয়া হয়েছিল। বিএনপির দেওয়া তালিকা থেকেও নির্বাচন কমিশনার বর্তমান কমিশনে রয়েছেন। কাজেই ভবিষতে নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠনের সম্ভাবনা নাই। তেমনি সহায়ক সরকার বা তত্ত্ববধায়ক সরকার বলে কোনো সরকার বাংলাদেশে আর আসবে বলে আমি মনে করি না। কারণ, এই সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে। কিন্তু নির্বাচনকালীন সময়ে সমস্ত ক্ষমতা থাকবে ইসির হাতে।’

গাজীপুরের স্থগিত হয়ে যাওয়া সিটি করপোরেশন নির্বাচন প্রসঙ্গে গোলটেবিল বৈঠকে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুর রাজ্জাক জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেকোনো সময়ে গাজীপুর নির্বাচনে অংশ নেওয়ার প্রস্তুতি রাখতে বলেছেন। তিনি বলেন, ‘গাজীপুরে কেন নির্বাচন হবে না? আমরা কুমিল্লায় হেরেছি, রংপুরে হেরেছি। মেনে নিয়েছি। খুলনায় নির্বাচন হচ্ছে না! আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে। সামরিক বাহিনীর সহায়তায় আওয়ামী লীগ কখনো ক্ষমতায় আসেনি। ৫৪ থেকে আজ পর্যন্ত নির্বাচনী প্রক্রিয়ার মাধ্যমে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেছে। আগামীতেও জনগণের রায় নিয়ে স্থানীয় এবং জাতীয় সব ক্ষেত্রে ক্ষমতায় আসবে। ক্ষমতায় থাকবে।’

বৈঠকে এসএসসি পরীক্ষায় কৃতকার্য হওয়া ৫ ছাত্রীকে উপহার হিসেবে বঙ্গবন্ধুর লেখা ‘কারাগারের রোজনামচা’ তুলে দেন তোফায়েল আহমেদ।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মারুফা আক্তার পপির সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান, হুইপ ইকবালুর রহিম, পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক মোখলেছুর রহমান ও ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অজয় কর খোকন। বৈঠকে মূল প্রবন্ধ পড়েন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. মশিউর রহমান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *