গোরস্থানে চলে গেছে : নাসিম – কি গোরস্থানে যাওয়ার কথা বললেন ??

তত্ত্বাবধায়ক সরকার গোরস্থানে চলে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম। তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থায় আগামী নির্বাচন হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই বলেও জানিয়েছেন তিনি। রাজশাহীতে আওয়ামী লীগের এক জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দিতে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, নির্বাচন আসছে। আবার চক্রান্ত শুরু হয়েছে। নতুন ফর্মুলা দেয়া হচ্ছে যে, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া নির্বাচন করব না। ওই ফর্মুলায় কোনো কাজ হবে না। তত্ত্বাবধায়ক সরকার আসবে না, আসার কোনো সম্ভাবনা নেই। তত্ত্বাবধায়ক সরকার মরে গেছে, গোরস্থানে চলে গেছে। ১৪ দলের মুখপাত্র হিসেবে আমি বলতে চাই- ওই তত্ত্বাবধায়ক সরকার আর ফিরে আসবে না।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে নির্বাচন হলে নিরপেক্ষ নির্বাচন হয়। আমরা হারি বা জিতি, নির্বাচন সুষ্ঠু করি। রংপুরে আমরা হেরে গেছি, মেনে নিয়েছি। বিএনপিকে বলতে চাই- নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত হন। খেলা হবে মাঠে। আমরা নৌকা নিয়ে মাঠে থাকবো। দয়া করে খালেদা জিয়ার দল এবার মাঠ ছেড়ে পালিয়ে যাবেন না। আমরা ফাঁকা মাঠে গোল দিতে চাই না। এবার খেলে মাঠে গোল দিতে চাই।

বিএনপি এবার নির্বাচনে না এলে তাদের ‘বাটি চালান’ দিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না মন্তব্য করে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, মানুষ আন্দোলন চায় না। হরতাল-মিছিল চায় না।

অবরোধ চায় না। প্রমাণ হলো- বেগম জিয়া কারাগারে আছেন। আমরা তাকে জেলে পাঠাইনি। জেলের রাজনীতি আমরা করি না। আদালত রায় দিয়েছেন। তিনি জেলে গেছেন। খালেদা জিয়ার মামলা আমরা করিনি। ওই তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে দুদক তার বিরুদ্ধে মামলা করেছিল। আদালতে বিচার হয়েছে।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বিচারের বাণী নীরবে-নিভৃতে কেঁদেছে ২১ বছর। বেগম খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনিদের প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন। আজ তার দলের নেতারা ন্যায় বিচার চান। খালেদাকে সাজা আমরা দেইনি। তাকে মুক্তিও আমরা দিতে পারব না। যদি মুক্তি পান, আদালতে পাবেন। আমাদের কিছু করার নেই।

মঙ্গলবার বিকালে রাজশাহী নগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে এই জনসভার আয়োজন করে মহানগর আওয়ামী লীগ। দলের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও মহানগরের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন এতে সভাপতিত্ব করেন।

জনসভায় দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নুরুল ইসলাম ঠান্ডু, সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য আখতার জাহান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ প্রমুখ বক্তব্য দেন।

মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার জনসভা পরিচালনা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *