ব্রেকিং ! মাত্র পাওয়া : খালেদার আপিল শুনানিতে শীর্ষ নেতাসহ তিনশতাধিক আইনজীবী – আদালতের বর্তমান অবস্থা জেনে নিন

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় কারাদণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন স্থগিত চেয়ে করা রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদকের করা আপিলের (লিভ টু আপিল) ওপর শুনানিতে আদালতে উপস্থিত রয়েছেন বিএনপির শীর্ষ নেতারা। খালেদা জিয়ার জামিনের বিরুদ্ধে আপিলের ওপর আজ (বুধবার) দ্বিতীয় দিনের শুনানি শুরু হয়েছে।

সকাল ৯টা ২৫ মিনিটের দিকে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বিভাগের বেঞ্চে খালেদা জিয়ার আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী শুনানি শুরু করেন।

গতকালের মতো আজও আদালতে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত রয়েছেন। একদল আইনজীবীর হইচইয়ের মধ্য দিয়ে খালেদা জিয়ার জামিনের বিরুদ্ধে আপিলের ওপর গতকাল প্রথম দিনের শুনানি হয়।

মঙ্গলবার প্রথমে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান শুনানি শুরু করেন। পরে রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যার্টনি জেনারেল মাহবুবে আলম শুনানি করেন। এর পর গতকালই শুনানি শুরু করেন খালেদা জিয়ার আইনজীবী এজে মাহাম্মদ আলী। তারই ধারাবাহিকতায় তিনি বুধবার আবারও শুনানি করছেন। আইনজীবী এজে মুহাম্মদ আলীর শুনানি শেষ করার পর খালেদা জিয়ার অপর আইনজীবী অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন শুনানি করছেন।

আপিলের (লিভ টু আপিল) ওপর শুনানি শুরু হলে এজলাসে এসে বসে তা প্রত্যক্ষ করছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান।

গতকাল মঙ্গলবার বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও ড. আব্দুল মঈন খান।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ১৯ মার্চ মামলাটি শুনানির জন্য ৮ মে দিন ধার্য করেছিলেন প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন একই বেঞ্চ।

গত ১২ মার্চ দুদকের আবেদনের শুনানি নিয়ে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াকে ৪ মাসের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি এ মামলায় তার সাজা কেনো বৃদ্ধি করা হবে না, তা জানতে চেয়েও রুল জারি করেন আদালত।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ ওই আদেশ দেন।

পরে জামিন আদেশের বিরুদ্ধে দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষ নিয়মিত লিভ টু আপিল দায়ের করলে ১৯ মার্চ প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ ৮ মে পর্যন্ত জামিন স্থগিতের আদেশ দেন। একই সঙ্গে দুই সপ্তাহের মধ্যে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদকের আইনজীবীদের আপিলের সারসংক্ষেপ জমা দিতে বলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *