সুখবর ! ৫ ঘন্টা পর ! অতঃপর যে সুখবর পেলো বিএনপি

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমানকে ছেড়ে দিয়েছে গাজীপুরের টঙ্গী থানার পুলিশ। আজ রোববার রাত ১০টার দিকে তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

জেলা পুলিশের ডিএসবির পরিদর্শক মোমিনুল ইসলাম এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বিএনপির চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ের গণমাধ্যম শাখার কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান জানিয়েছেন, আবদুল্লাহ আল নোমানকে ছেড়ে দিয়েছে টঙ্গী থানার পুলিশ।

মুক্তি পাওয়ার পর তিনি ঢাকার উদ্দেশে রওনা হয়েছেন।

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন আজ স্থগিত করেন হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ। এরপর বিকেলে টঙ্গীতে নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করেন নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার।

এ সময় উত্তেজিত নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ করে। পুলিশ সেখানে অভিযান চালিয়ে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যানসহ আবদুল্লাহ আল নোমানসহ ১৩ জনকে আটক করে।

জেলা বিএনপির সভাপতি এ কে এম ফজলুল হক জানান, সংবাদ সম্মেলন শেষে বিকেল ৫টার দিকে টঙ্গী থানা ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশ হাসান উদ্দিন সরকারের বাসার সামনে গিয়ে অবস্থান নেয়।

এ সময় সংবাদ সম্মেলনস্থল থেকে বের হয়ে যাওয়ার সময় পুলিশ বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমানসহ ১০ নেতাকর্মীকে আটক করে। এ সময় নোমানের গাড়িসহ বিএনপির অন্য নেতাদের গাড়িতে তল্লাশি করে পুলিশ।

আটক অন্যরা হলেন সোহেল, শহীদুল ইসলাম, মাসুদুর রহমান শাকিল, কবির আহমেদ, আব্দুল কাইয়ুম, কাজী মোশারফ, আলাউদ্দিন, আব্দুল্লাহ ও ফরিদ। পরে পুলিশ সেখান থেকে আরো তিনজনকে আটক করে।

আটককৃতদের টঙ্গী মডেল থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। পরে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বিশৃঙ্খলা এড়াতে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকারের ওই বাসার আশপাশে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

এ ব্যাপারে গাজীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাসেল শেখ জানান, রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি, গাড়ি ভাঙচুর ও জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টির অভিযোগে ঘটনাস্থল থেকে আবদুল্লাহ আল নোমানসহ ১০ জনকে আটক করা হয়েছে। পুলিশের আরো অভিযান চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *